১০ বছর ফ্রিজের ভেতর মায়ের মৃতদেহ রাখলো মেয়ে!

১০ বছর ফ্রিজের ভেতর মায়ের মৃতদেহ রাখলো মেয়ে!

১০ বছর ফ্রিজের ভেতর মায়ের মৃতদেহ রাখলো মেয়ে!
ছবি: সংগৃহীত

বৈচিত্র ডেস্ক:জাপানের রাজধানী টোকিওতে কোনো মানসিক বিপর্যয় নয়, সুনির্দিষ্ট কারণেই মায়ের মৃতদেহ ফ্রিজের ভেতরে রাখলো মেয়ে। তাও আবার কয়েক দিন বা মাস নয়, টানা ১০ বছর!

ইউমি ইয়োসিনহো নামে এক নারী ১০ বছর ধরে ফ্রিজে ঢুকিয়ে রেখেছেন তার মায়ের মৃতদেহ। মৃতদেহটি অবিকৃতভাবে রয়ে গেছে তেমনটাই। কেউ টের পায়নি।

জানা গেছে, ওই নারী এবং তার মা টোকিওতে যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন, সেটি মিউনিসিপ্যালিটির অধীনে। মায়ের নামেই সরকার থেকে লিজ নেওয়া ছিল। এ জন্য প্রতি মাসে ভাড়াও গুনতে হত। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে ওই বাড়ি ভাড়া দেয়া হয়নি। শেষমেশ এ মাসের মাঝামাঝি সময়ে বাড়ি ছাড়তে বলা হয় তাদের। বাড়ি খালি করে চলে যান ইউমি।

এর পরে ওই অ্যাপার্টমেন্ট পরিষ্কারের কাজ শুরু হয়। তখনই ফ্রিজ খুলে উদ্ধার হয় মৃতদেহ! জানা যায়, মৃতদেহটি ইউমির মায়ের। পুলিশে খবর দিলে শুরু হয় তদন্ত। ইউমিকে জেরা করতে শুরু করেন তদন্তকারীরা। আর তাতেই প্রকাশ্যে আসে অদ্ভুত তথ্য।

উমি পুলিশের কাছে জানান, ১০ বছর আগেই তার মা মারা গেছেন। কিন্তু যেহেতু বাড়িটি মায়ের নামে লিজ নেওয়া ছিল, তাই মৃত্যুর কথা জানাজানি হলে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে হতো তাকে। এই ভয়েই তিনি কাউকে কিছুই জানাননি। এমন ভাবে থাকতেন, যেন মা বাড়িতেই রয়েছেন। দেহ পচে যাতে দুর্গন্ধ না ছড়ায়, সেজন্য সেটি ফ্রিজে ঢুকিয়ে রেখেছিলেন।

৬০ বছর বয়সে মারা গেছেন ওই নারী। আর এখন ইউমির বয়স ৪৮। অর্থাৎ তিনি যখন ৩৮ বছর বয়সের তরুণী ছিলেন, তখনই তার মা মারা যান এবং সেই থেকে মাকে ফ্রিজে রেখে দিয়েছেন তিনি! তবে ইউমির মায়ের মৃত্যুর কারণ কী ছিল, সে বিষয়ে এখনও কিছু বুঝতে পারেনি পুলিশ। খুনের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না তারা।