দিনে শিশু, রাতের আঁধারে বেড়া কেটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা!

দিনে শিশু, রাতের আঁধারে বেড়া কেটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা!

দিনে শিশু, রাতের আঁধারে বেড়া কেটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা!
ছবি: সংগৃহীত

বৈচিত্র্য ডেস্ক: দিনে দুপুরে এক শিশুকে ধর্ষণ ও রাতের আঁধারে এক স্কুলছাত্রীর ঘরের বেড়া কেটে ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে রাজিব ও বেলাল নামে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় পৃথক এ দুটি ঘটনা ঘটে ভবানীপুর ও সুঘাট ইউনিয়নের আলাদা দুটি গ্রামে।

পুলিশ জানায়, গতকাল ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীসহ তিন সন্তানকে বাড়িতে রেখে সিরাজগঞ্জে গিয়েছিলেন এক দম্পতি। এ সুযোগে রাত ১০টায় ওই ছাত্রীর ঘরের বেড়া কেটে প্রবেশ করে গ্রামের বখাটে বেলাল হোসেন। তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন তিনি। এ সময় ভুক্তভোগীর দুই ভাই বেলালের লুঙ্গি ধরে রেখে চিৎকার শুরু করে। লুঙ্গি ফেলে রেখে পালিয়ে যান বেলাল। আজ বুধবার সকালে ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের কাছে জানিয়ে বিচার দাবি করেন ভুক্তভোগীর বাবা।

ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে সালিশ করা বেআইনী উল্লেখ করে ভুক্তভোগীসহ তার পরিবারকে থানায় অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। পরে তারা শেরপুর থানায় মামলা দায়ের করলে একটি অভিযান পরিচালনা করেন পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) সিয়াম হাসান। উপজেলার ভবানীপুর বাজার থেকে বেলালকে তিনি গ্রেপ্তার করেন।

এর আগে গত শনিবার উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের একটি গ্রামের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় রজিব শেখ নামে এক যুবককে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় ইউনিয়নের জয়লা জুয়ান গ্রামের বটতলা থেকে। তার দুটি সন্তান আছে।

জানা গেছে, চকলেটের প্রলোভনে ভুক্তভোগী শিশুকে ধর্ষণ করেন রাজিব। গতকাল ফের ওই শিশুকে ধর্ষণের উদ্দেশে তার ঘরে যান। সেখানে শিশুটিকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করলে ভুক্তভোগীর চিৎকারে বাসার সবাই সেখানে এসে মেয়েকে উদ্ধার করে। রাজিবকে একটি ঘরে আটকে রাখা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে সেখান থেকে তাকে ছিনিয়ে যায় তার চাচীরা। গতকালই শিশুটির পরিবারের লোকজন মামলা করেন। রাতে রাজিবকে গ্রেপ্তার করেন এসআই আলহাজ উদ্দিন।