ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে অবাঞ্ছিত লোম দূর করুন

ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে অবাঞ্ছিত লোম দূর করুন

ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে অবাঞ্ছিত লোম দূর করুন
ছবি: সংগৃহীত

বৈচিত্র ডেস্ক:ত্বকের কিছু লোম সৌন্দর্যে ঘাটতি এনে দেয়। ত্বকের এই অবাঞ্ছিত লোম দূর করার কয়েকটি উপায় জেনে নিন:

লোমের হাত থেকে রক্ষা পেতে কফির স্ক্রাব সব চাইতে বেশি কার্যকরী একটি উপায়।

ক্যাফেইন ত্বকের গভীরে ঢুকে লোম দূর হতে সাহায্য করে।

একটি বাটিতে প্রথমে ২ টেবিল চামচ কফি ও ১ টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে নিন। এতে ১ টেবিল চামচ মধু ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে ভালো করে মেশান। কফি ও চিনি পুরো গলবে না। মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসাজ করুন। ৫ মিনিট ম্যাসাজ করে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহারে অনেক ভালো ফল পাবেন।

লেবুর রস প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে কাজ করে। মুখের লোম দূর করা ও লোমের ঘনত্ব কমাতে লেবুর রসের জুড়ি নেই। চিনি দিয়ে স্ক্রাব করলে ত্বকের রোমকূপ থেকে লোম দূর হতে সহায়তা করে। এই স্ক্রাবটি তৈরি করতে লাগবে ৩ টেবিল চামচ চিনি, ১ টেবিল চামচ লেবুর রস ও ১ টেবিল চামচ পানি। প্রথমে সব উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে নেবেন। এই প্যাক ত্বকে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এরপর মুখ ধোয়ার সময় ভালোভাবে ঘষে তুলুন। এতে লোম দূর হবে। সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন এভাবে করুন। দ্রুত মুখের লোম থেকে মুক্তি পাবেন।

ময়দা ও দই-এর প্যাক ত্বকের লোমের রঙের পরিবর্তন করে এবং ওঠার পরিমাণ কমিয়ে দিতে সাহায্য করে। এই প্যাকটি তৈরি করতে লাগবে ২ টেবিল চামচ ময়দা, ১ টেবিল চামচ দই, ১ চা চামচ লেবুর রস ও ১ চিমটি হলুদ গুঁড়া। একটি বাটিতে এই সব উপাদান নিয়ে খুব ভালো করে মিশিয়ে নিন। খেয়াল রাখবেন মিশ্রণটি যেন খুব পাতলা না হয়। থকথকে ঘন হলে ভালো কাজে দেবে। এরপর মিশ্রণটি মুখে লাগান। বিশেষ করে নাকের নিচে ও থুতনিতে এবং কপালে। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত মুখে লাগিয়ে রাখুন। তারপর পানি দিয়ে ভালোমতো ঘষে মুখ থেকে তুলে ফেলুন। সপ্তাহে ৩/৪ দিন এই প্যাকটি লাগানোর চেষ্টা করবেন। কিছু দিনের মধ্যেই অবাঞ্ছিত লোম দূর হবে।