অবৈধ মোবাইল বন্ধ করার লক্ষ্যে প্রযুক্তি সরবরাহের প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত

অবৈধ মোবাইল বন্ধ করার লক্ষ্যে প্রযুক্তি সরবরাহের প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত

অবৈধ মোবাইল বন্ধ করার লক্ষ্যে প্রযুক্তি সরবরাহের প্রতিষ্ঠান চূড়ান্ত
ছবি: সংগৃহীত

বৈচিত্র্য ডেস্ক:টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি সরবরাহে সিনোসিস আইটি লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে চূড়ান্ত করেছে।

বিটিআরসি জানিয়েছে আগামী ২ ডিসেম্বরের মধ্যে এ বিষয়ে সিনোসিস আইটিকে চুক্তি করতে বলা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিকে পাঠানো চিঠিতে, চুক্তি করার ১২০ কার্যদিবসের মধ্যে পুরো ব্যবস্থাটি চালু করতে হবে। সেই হিসেবে আগামী বছরের এপ্রিলের মধ্যে অবৈধ ফোন বন্ধের উদ্যোগ কার্যকর হবে।

২০১২ সালে প্রথম দেশে অবৈধ মুঠোফোন সেট বন্ধের উদ্যোগ নেয় বিটিআরসি। এর প্রায় আট বছর পর গত ১৮ ফেব্রুয়ারি দরপত্র আহ্বান করে বিটিআরসি।

বিদেশি মুদ্রায় ২৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬৯ মার্কিন ডলার এবং বাংলাদেশি ১০ কোটি ২ লাখ ৯২ হাজার ৯৫০ টাকা অর্থাৎ মোট প্রায় ৩০ কোটি টাকায় নির্বাচিত সিনোসিস আইটি এ প্রযুক্তি সেবা সরবরাহ করবে বলে জানান বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক।

তবে অবৈধ পথে দেশে আসা মুঠোফোন বন্ধের আগে নিবন্ধনের সুযোগ দেয়া হবে বলে জানান জহুরুল হক। এরপরও হ্যান্ডসেট নিবন্ধন না করলে, অবৈধ হ্যান্ডসেটে প্রাথমিকভাবে নির্দিষ্ট একটি সিম ছাড়া অন্য কোনো সিম কাজ করবে না। নির্দিষ্ট সময় পরে কোনো সিমই কাজ করবে না। ফলে নকল বা অবৈধ হ্যান্ডসেটের ব্যবহার বন্ধ হবে। বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স এসোসিয়েশনের বিএমপিআইএ'র তথ্যমতে, দেশের মুঠোফোনের প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ অবৈধ পথে আমদানি হয়। যার বাজার মূল্য প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা।